IslamSymbolAllahCompWhite.PNG
আল-ইসলাম প্রবেশদ্বারে স্বাগতম
উইকিপিডিয়ায় ইসলাম-সম্পর্কিত সম্পদের জন্য একটি প্রবেশদ্বার
বাংলা ভাষায় ৩৪৬টি নিবন্ধসমূহ রয়েছে।
ইসলাম প্রবেশদ্বারমুহাম্মাদ (সাঃ) প্রবেশদ্বারইসলাম কি?সূচকউইকিপ্রকল্পবিষয়শ্রেণী
Star and Crescent.svg

Basmala.svg


প্রবেশদ্বার ইসলাম

Bissmillah.gif

ইসলাম (আরবি ভাষায়: الإسلام আল্‌-ইসলাম্‌) একটি একেশ্বরবাদী ধর্ম। "ইসলাম" শব্দের অর্থ "আত্মসমর্পণ", বা একক স্রষ্টার নিকট নিজেকে সমর্পন। খ্রিষ্টীয় সপ্তম শতকে আরবের ধর্মীয় ও রাজনৈতিক নেতা মুহাম্মদ (সঃ) এই ধর্ম প্রচার করেন। কুরআন ইসলামের মূল ধর্মগ্রন্থ। এই ধর্মে বিশ্বাসীদের মুসলমান বা মুসলিম বলা হয়। কুরআন আল্লাহর বাণী এবং তার কর্তৃক মুহাম্মদের (সঃ) নিকট প্রেরিত বলে মুসলমানরা বিশ্বাস করেন। তাদের বিশ্বাস

অনুসারে মুহাম্মদ (সঃ) শেষ নবী। হাদিসে প্রাপ্ত তাঁর নির্দেশিত কাজ ও শিক্ষার ভিত্তিতে কুরআনকে ব্যাখ্যা করা হয়।ইহুদিখ্রিস্ট ধর্মের ন্যায় ইসলাম ধর্মও আব্রাহামীয়। মুসলমানের সংখ্যা আনুমানিক ১৪০ কোটি ও তারা পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মাবলম্বী গোষ্ঠী। মুহাম্মদ (সঃ) ও তার উত্তরসূরীদের প্রচার ও যুদ্ধ জয়ের ফলশ্রুতিতে ইসলাম দ্রুত বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে। বর্তমানে সমগ্র বিশ্ব জুড়ে, বিশেষ করে মধ্যপ্রাচ্য, উত্তর আফ্রিকা, দক্ষিণ এশিয়া, পূর্ব আফ্রিকা, পশ্চিম আফ্রিকা, মধ্য এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় মুসলমানরা বাস করেন। আরবে এ ধর্মের গোড়া পত্তন হলেও অধিকাংশ মুসলমান অনারব এবং আরব দেশের মুসলমানরা মোট মুসলমান সংখ্যার শতকরা মাত্র ২০ বিশভাগ। যুক্তরাজ্যসহ বেশ কিছু ইউরোপীয় দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্ম ইসলাম।

ইসলাম সম্পর্কে আরও জানুন...

নির্বাচিত নিবন্ধ

16 2-8-2005-Noahs-ark-Hafis-Abru-2.jpg
নূহের নৌকা (আরবী:سفينة نوح, হিব্রু: תיבת נח‎; বাইবেলীয় হিব্রু: Tevat Noaḥ) হচ্ছে একটি নৌকা সদ্দৃশ ভাসমান বস্তু যার সাহায্যে সৃষ্টিকর্তা জলোচ্ছ্বাসের হাত থেকে (জেনেসিস অধ্যায় ৬-৯) নূহ (আঃ), তার পরিবার এবং পৃথিবীর প্রাণীকূলকে রক্ষা করেন। সৃষ্টিকর্তা নূহ (আঃ) কে আর্ক বা নৌকা নির্মানের পূর্ণাঙ্গ নির্দেশণা দিয়েছিলেন। এটা গফার কাঠ দ্বারা নির্মিত এবং বাইরে পিচ দেয়া যাতে তিনটা ডেক এবং অন্তঃস্থ প্রকোষ্ঠ ছিলো। এটা ৪৫০ ফুট লম্বা, ৭৫ ফুট চওড়া এবং ৪৫ ফুট উঁচু। এর প্রবেশ পথ একদিকে।

বাইবেলীয় বর্ণনায় ভাসমান প্রকোষ্ঠটিকে বলা হয়েছে আর্ক (নোহা'স আর্ক), যা দ্বাররা নূহের সিন্দুক বোঝায়। আল কোরআনে আর্কের জায়গায় সাফিনা বলা হয়েছে (سفينة نوح নূহের নৌকা)। যদিও বিশ্বব্যাপী প্লাবণ বা মহাপ্লাবণের কোন বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নেই।তবুও অনেকেই নূহের নৌকার খূঁজতে প্রত্বতাত্ত্বিক অনুসন্ধান চালিয়েছেন।

আরও জানুন...

প্রধান নিবন্ধ

Istanbul, Hagia Sophia, Allah.jpg
আল্লাহ্ (আরবি: ﺍﷲ‎‎) একটি আরবি শব্দ, ইসলাম ধর্মানুযায়ী যার মানে হল "বিশ্বজগতের একমাত্র স্রষ্টা এবং প্রতিপালকের নাম"। "আল্লাহ" শব্দটি প্রধানতঃ মুসলমানরাই ব্যবহার করে থাকেন। মূলতঃ “আল্লাহ্" নামটি ইসলাম ধর্মে বিশ্বজগতের সৃষ্টিকতার সাধারনভাবে বহুল-ব্যবহৃত নাম। এটি ছাড়াও আরো কিছু নামে সম্বোধন করা হয়। মুসলমানদের ধর্মগ্রন্থ কোরআনে আল্লাহ্‌র নিরানব্বইটি নামের কথা উল্লেখ আছে; তার মধ্যে কয়েকটি হল: সৃষ্টিকতা, ক্ষমাকারী, দয়ালু, অতিদয়ালু, বিচারদিনের মালিক, খাদ্যদাতা, বিশ্বজগতের মালিক প্রভৃতি।

তবে আরবি খ্রিস্টানরাও প্রাচীন আরবকাল থেকে "আল্লাহ" শব্দটি ব্যবহার করে আসছেন। বাহাই, মাল্টাবাসী, মিজরাহী ইহুদি এবং শিখ সম্প্রদায়ও "আল্লাহ" শব্দ ব্যবহার করে থাকেন।

আরো দেখুন

নির্বাচিত রাজ্য

ImperioOtomano1683.png
উসমানীয় সাম্রাজ্য (n/; উসমানীয় তুর্কি: دَوْلَتِ عَلِيّهٔ عُثمَانِیّه, Devlet-i Aliyye-i Osmâniyye, আধুনিক তুর্কি: Osmanlı İmparatorluğu or Osmanlı Devleti), ঐতিহাসিকভাবে তুর্কি সাম্রাজ্য বা তুরস্ক বলে পরিচিত, ছিল একটি ইসলামি সাম্রাজ্য। ১২৯৯ সালে অঘুজ তুর্কি বংশোদ্ভূত প্রথম উসমান উত্তরপশ্চিম আনাতোলিয়ায় এই সালতানাত প্রতিষ্ঠা করেন। প্রথম মুরাদ কর্তৃক বলকান জয়ের মাধ্যমে উসমানীয় সাম্রাজ্য বহুমহাদেশীয় সাম্রাজ্য হয়ে উঠে এবং খিলাফতের দাবিদার হয়। ১৪৫৩ সালে সুলতান দ্বিতীয় মুহাম্মদের কনস্টান্টিনোপল জয় করার মাধ্যমে উসমানীয়রা বাইজেন্টাইন সাম্রাজ্য উচ্ছেদ করে।

১৬শ ও ১৭শ শতাব্দীতে বিশেষত সুলতান প্রথম সুলাইমানের সময় উসমানীয় সাম্রাজ্য দক্ষিণপূর্ব ইউরোপ, পশ্চিম এশিয়া, ককেসাস, উত্তর আফ্রিকা ও হর্ন অব আফ্রিকা জুড়ে বিস্তৃত একটি শক্তিশালী বহুজাতিক, বহুভাষিক সাম্রাজ্য ছিল।১৭শ শতাব্দীর শুরুতে সাম্রাজ্যে ৩২টি প্রদেশ ও বেশ কয়েকটি অনুগত রাজ্য ছিল। এসবের কিছু পরে সাম্রাজ্যের সাথে একীভূত করে নেয়া হয় এবং বাকিগুলোকে কিছুমাত্রায় স্বায়ত্ত্বশাসন দেয়া হয়।

উসমানীয় সাম্রাজ্য ছয় শতাব্দী ধরে প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের যোগাযোগের কেন্দ্র হিসেবে কাজ করেছে। তবে দীর্ঘদিনব্যাপী ইউরোপীয়দের তুলনায় সামরিক ক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়ে। ধারাবাহিক অবনতির ফলে সাম্রাজ্য ভেঙে পড়ে এবং প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর সম্পূর্ণ বিলুপ্ত হয়ে যায়। এরপর আনাতোলিয়ায় নতুন প্রজাতন্ত্র হিসেবে আধুনিক তুরস্কের উদ্ভব হয়। বলকানমধ্যপ্রাচ্যে সাম্রাজ্যের সাবেক অংশগুলো বিভিন্ন নতুন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

আরও জানুন...

নির্বাচিত চিত্র

ফিলিস্তিনি পরিচ্ছদ
কৃতিত্ব: আমেরিকান উপনিবেশ (জেরুজালেম) ছবি বিভাগ.

রামাল্লায় একজন যুবতী নারী , আনু : ১৮৯৮-১৯১৪ ।এইসব পরিচ্ছদসমূহ নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণ তাদের জীবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। একজন জ্ঞানসম্পন্ন পর্যবেক্ষকও নির্ধারণ করতে পারেন ,মহিলার বংশোদ্ভূত এবং সামাজিক অবস্থা ,শুধুমাত্র তাঁর পরিচ্ছদসমূহ থেকে ।

আরও...

নির্বাচিত জীবনী

Al-kindi.jpeg
আবু ইউসুফ ইয়াকুব ইবনে ইসহাক আল-কিন্দি (আরবি: أبو يوسف يعقوب بن إسحاق الكندي‎‎‎) (৮০১ - ৮৭৩) প্রখ্যাত আরব পণ্ডিত। পাশ্চাত্য বিশ্বে তিনি লাতিনিকৃত "আলকিন্ডাস" (Alkindus) নামে পরিচিত। তিনি ছিলেন একাধারে দার্শনিক, বিজ্ঞানী, জ্যোতিষী, জ্যোতির্বিজ্ঞানী, বিশ্বতত্ত্ববিদ, রসায়নবিদ, যুক্তিবিদ, গণিতজ্ঞ, সঙ্গীতজ্ঞ, পদার্থবিজ্ঞানী, মনোবিজ্ঞানী এবং আবহবিজ্ঞানী। মুসলিম পেরিপ্যাটেটিক দার্শনিকদের মধ্যে তিনিই প্রথম। তাই তাকে মুসলিম পেরিপ্যাটেটিক দর্শনের জনক বলা যায়। তার অনেক অর্জনের মধ্যে বিশেষ উল্লেখযোগ্য ছিল গ্রিক এবং হেলেনীয় দর্শনকে আরব জগতে পরিচিত করে তোলা। এছাড়া বিজ্ঞানের অনেকগুলো শাখায় তিনি অগ্রদূতের ভূমিকা পালন করেছেন।

আল-কিন্দিই প্রথম ভারতীয় সংখ্যা পদ্ধতিকে মুসলিম ও খ্রিস্টান বিশ্বে পরিচিত করে তোলেন। ক্রিপ্টোলজি ও ক্রিপ্ট্যানালাইসিসে তার বিশেষ আগ্রহ ছিল, গুপ্ত সংকেতের মর্ম উদ্ধারের জন্য কয়েকটি নতুন গাণিতিক পদ্ধতিও আবিষ্কার করেছিলেন যার মধ্যে কম্পাঙ্ক বিশ্লেষণ পদ্ধতি উল্লেখয়োগ্য। গণিত ও চিকিৎসাবিজ্ঞানের জ্ঞানকে ব্যবহার করে ডাক্তারদের জন্য একটি স্কেল নির্ধারণ করেছিলেন। এই স্কেল দিয়ে ডাক্তাররা তাদের প্রস্তাবিত ঔষুধের কার্যকারিতা পরিমাপ করতে পারতো। এছাড়া তিনিই প্রথম সঙ্গীত থেরাপি পরীক্ষা করে দেখেছিলেন।আল-কিন্দির দর্শনের প্রধান বিষয় চিল মূলধারার ইসলামী ধর্মতত্ত্বের সাথে সার সংযোগ। অনেক ইসলামী চিন্তাবিদের মত তিনিও ধর্মতত্ত্বের সাথে দর্শনের সম্পর্ক নির্ণয়ের চেষ্টা করেছিলেন। কিন্দির অনেক রচনাতেই ধর্মতত্ত্বের মৌলিক বিষয়ের দেখা মিলে। যেমন, আল্লাহ্‌র প্রকৃতি, আত্মা এবং ভবিষ্যদ্বাণী। মুসলিম বুদ্ধিজীবীদের কাছে দর্শনের গুরুত্ব তুলে ধরার ক্ষেত্রে তার কাজ যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ হলেও তার নিজস্ব দার্শনিক চিন্তায় মৌলিকত্ব খুব বেশি ছিল না। আল-ফারাবি নামক আরেকজন মুসলিম দার্শনিকের মতবাদ তার দার্শনিক ধারাকে অনেকটাই ম্লান করে দিয়েছে। তার উপর বর্তমান যুগে পরীক্ষা করার মত তার খুব কম লেখাই অবশিষ্ট আছে। তার পরও কিন্দিকে আরব ইতিহাসের অন্যতম সেরা দার্শনিকের মর্যাদা দেয়া হয়। আর এ কারণেই তাকে অনেকে সরাসরি "দ্য আরব ফিলোসফার" নামে ডাকেন।

আরো দেখুন


আপনি জানেন কি ?

  • ... যে , প্রেসবাইটেরিয়ান মহিলা কলেজ তাঁর মেয়েদের স্কুলে হিজাব পরার অনুমতি না দেওয়ায় , সালমা ইহরাম গ্রিনেক্রিতে আল-নূরী মুসলিম প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ; এবং পরবর্তীতে সিডনির নূর আল হুদা ইসলামিক কলেজ এর প্রধানশিক্ষিকা হয়েছিলেন ?
  • .... যে , মাছআব্ ইবনে উমায়ের ( রা : ) ছিলেন প্রথম সাহাবী দূত , যাঁকে নবী ( সা : ) মক্কা থেকে মদিনায় পাঠিয়েছিলেন মদিনাবাসীকে ইসলামের দিকে ডাকাইসলামের শিক্ষা দেওয়া এবং হিজরতের জন্য প্রস্তুত ( তাবলীগ ) করার জন্য ; এবং সেপ্টেম্বর ৬২২ খ্রিষ্টাব্দে যখন নবী ( সা : ) পৌছান , তখন মদিনার ছিল দশ হাজারজন মুসলমান ?
  • ..... যে ,অনেক ইরানী নারী ঘর থেকে বের হওয়া পছন্দ করেন না । রেজা শাহের কাশফ-ই হিজাব ডিক্রী'র কারণে হিজাব সরানো এড়াতে তাদের কেউ কেউ এমনকি আত্মহত্যাও করেছেন ?
  • ... যে , ইরানের সবোর্চ্চ মুসলিম নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনেই , পারমানবিক অস্ত্র অধিগ্রহণ, উন্নয়ন এবং ব্যবহার নিষিদ্ধ করে একটি ফতোয়া জারি করেছিলেন ?
...সংগ্রহশালা

নির্বাচিত সংগ্রাম

Battle of Auhad.png
উহুদের যুদ্ধ ইসলামের ইতিহাসে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সামরিক ঘটনা। বদরের যুদ্ধের পরের বছর এই যুদ্ধ সংঘটিত হয় । বদরের যুদ্ধে পরাজয়ের প্রতিশোধ হিসেবে কুরাইশরা মদীনা আক্রমণ করতে আসে। ফলে এই যুদ্ধের সূত্রপাত। ইসলামের প্রাথমিক যুগের হিজরি তৃতীয় সালে মদিনার তিন মাইল উত্তর-পূর্বে উহুদ নামক একটি পাহাড়ে নিকটস্থ কঙ্করময় প্রান্তরে এই যুদ্ধ সংঘটিত হয়। বদর যুদ্ধে পরাজয়ের প্রতিশোধ গ্রহণ এবং একই সঙ্গে ইসলাম ধর্মকে অঙ্কুরেই বিনাশ করার উদ্দেশ্য নিয়ে মক্কার তিন হাজার যোদ্ধা মদিনা অভিমুখে অভিযান করে। প্রথমাবস্থায় মুসলিম বাহিনীর বিজয় লাভের লক্ষণ দেখা যায়। বিজয়ের আভাস দেকে কিছু সংখ্যক যোদ্ধা অসতর্ক হয়ে পড়লে বিপর্যয় নেমে আসে। তাঁদের নেতা মুহাম্মাদ (সা.) নির্দেশ ভুলে গিয়ে মুসলমান তীরন্দজগণ নিদির্ষ্ট স্থান পরিত্যাগ করে অন্যত্র চলে যাওয়ায় ঐ স্থান অরক্ষিত হয়ে পড়ে এবং এই সযোগে মক্কায় যোদ্ধাগণ পিছন দিক থেকে মুসলিম বাহিনীকে আক্রমণের সুযোগ পেয়ে যায়। ফলে মুসলিম বাহিনী অতর্কিতে বিপর্যস্ত অবস্থায় পড়ে। রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ফলশ্রুতিতে হামজা(রা.) সহ প্রায় সত্তর জন মুসলমান শহীদ হন। মুহাম্মদ (সা.), আবুবকর (রা.)উমর (রা.) আহত হন। মুহাম্মাদ (সা.) একটি দাঁত ভেঙে যায়। মুসলমানদের বিপুল ক্ষয়ক্ষতি হয়। তবে তাঁরা আত্মরক্ষা করতে সমর্থ হয়। তাঁরা বীরত্বের সঙ্গে প্রতিরোধ করায় শত্রুপক্ষ মক্কায় ফিরে যেতে বাধ্য হয়। আরও জানুন...

নির্বাচিত আয়াতের ভাবানুবাদ

শুরু করছি আল্লাহর নামে, যিনি পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু
-- ১-৪
...সংগ্রহশালা/মনোনয়ন

নির্বাচিত উক্তি

- আরবী প্রবাদ

আজকের নির্বাচিত ভিডিও

(ভিডিও দেখার জন্য ক্লিপ চালান বোতামে ক্লিক করুন। যদি ভিডিও না দেখা যায়, তাহলে "মেনু" তে ক্লিক করে অন্য ভিডিও প্লেয়ার নির্বাচন করুন।)
শিকাগো শহরের "বৈচিত্র্যময়" নাগরিকদের সমন্ধে জানানোর জন্য তৈরী ডকুমেন্টারী
ইসলাম বিষয়ক আরও ভিডিওর জন্য এখানে খুঁজুন :: Category:Islam, Category:Abrahamic_religions এবং Category:Religious_faiths,_traditions_and_movements

নির্বাচিত হাদীস

ইবনে আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত;

নবীজি Mohamed peace be upon him.svg বলেছেন:
(৩০২৯)

নির্বাচিত বিস্তৃত দৃশ্য

Kakrail Mosque, Dhaka.jpg
Kakrail Mosque, Dhaka. The Tablighi Jamaat movement in Bangladesh is mostly based on this particular mosque.

প্রসঙ্গ

IslamSymbolAllahCompWhite.PNG
প্রসঙ্গ
ইসলাম (বই)

ঈমান ও আমল : আল্লাহ'র একত্ববাদশাহাদাহ্‌নামাযরোযাহজ্জযাকাত

Islam topics

প্রধান বাক্তিত্ব : মুহাম্মাদ (সা:)আবু বকর ওমরওসমানআলীমুহাম্মাদ (সা:) এঁর সাথীরাআহল আল-বাইত ইসলামে নবীশিয়া ইমাম

কিতাব আইন : কুর'আনহাদীসশরিয়াহআইনশাস্ত্র • কালাম • মুহাম্মাদ (সা:) এঁর জীবনী

মুসলমানদের শ্রেণীবিভাগ : সুন্নিশি'য়াসূফীইবাদীকুরানবাদী

সমাজ-রাষ্ট্রীয় ব্যাবস্থা: শিক্ষা প্রতিষ্ঠানদর্শন • শিল্পকলা • বিজ্ঞানস্থাপত্যবর্ষপঞ্জিছুটির দিনইসলামে নারীনেতৃবৃন্দরাজনীতি • ইসলামে শান্তি • জিহাদ • উদারতাবাদ • আন্তর্জাতিক মুক্তি সমোঝোতা • ইসলামোফোবিয়া


আরও দেখুন : ইসলামী শব্দকোষ, ইসলামি নিবন্ধের সূচিপত্র

সম্পর্কিত প্রবেশদ্বার

বিষয়শ্রেণীসমূহ



কিছু পাওয়া যায়নি
নির্দিষ্ট কোন বিষয়শ্রেণীর উপবিষয়শ্রেণীগুলো দেখতে "►"  চিহ্নে ক্লিক করুন। পূর্বাবস্থায় ফেরৎ যেতে "▼"  চিহ্নে ক্লিক করুন।

উইকিপ্রকল্প

মূল প্রকল্প

উইকিপ্রকল্প ইসলাম

উইকিপ্রকল্প কি?

ইসলাম টেমপ্লেটসমূহ

আপনি যা করতে পারেন

আপনি যা করতে পারেন

উইকিমিডিয়া

উইকিসংবাদে ইসলাম   উইকিউক্তিতে ইসলাম  উইকিবইয়ে ইসলাম  উইকিসংকলনে ইসলাম  উইকিঅভিধানে ইসলাম  উইকিবিশ্ববিদ্যালয়ে ইসলাম  উইকিমিডিয়া কমন্সে ইসলামউইকিউপাত্তে ইসলামউইকিভ্রমণে ইসলাম
উন্মুক্ত সংবাদ উৎসউক্তি-উদ্ধৃতির সংকলনউন্মুক্ত পাঠ্যপুস্তক ও ম্যানুয়ালউন্মুক্ত পাঠাগারঅভিধান ও সমার্থশব্দকোষউন্মুক্ত শিক্ষা মাধ্যমমুক্ত মিডিয়া ভাণ্ডারউন্মুক্ত জ্ঞানভান্ডারউন্মুক্ত ভ্রমণ নির্দেশিকা
Wikinews-logo.svg
Wikiquote-logo.svg
Wikibooks-logo.png
Wikisource-logo.svg
Wiktionary-logo.svg
Wikiversity-logo.svg
Commons-logo.svg
Wikidata-logo.svg
Wikivoyage-Logo-v3-icon.svg

সার্ভার ক্যাশ খালি করুন

Other Languages
azərbaycanca: Portal:İslam
башҡортса: Портал:Ислам
bosanski: Portal:Islam
нохчийн: Ков:Ислам
čeština: Portál:Islám
Deutsch: Portal:Islam
English: Portal:Islam
español: Portal:Islam
français: Portail:Islam
Bahasa Indonesia: Portal:Islam
italiano: Portale:Islam
Basa Jawa: Gapura:Islam
қазақша: Портал:Ислам
Кыргызча: Портал:Ислам
македонски: Портал:Ислам
Bahasa Melayu: Portal:Islam
Nederlands: Portaal:Islam
norsk nynorsk: Tema:Islam
polski: Portal:Islam
پنجابی: بوآ:اسلام
português: Portal:Islão
русский: Портал:Ислам
svenska: Portal:Islam
Türkçe: Portal:İslam
татарча/tatarça: Портал:Ислам
українська: Портал:Іслам
oʻzbekcha/ўзбекча: Portal:Islom
Tiếng Việt: Chủ đề:Đạo Islam